বাংলাদেশের জাহাজ ভারতে - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

সোমবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২০

বাংলাদেশের জাহাজ ভারতে

আবু আলী, ঢাকা ॥
বাংলাদেশের জাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড (ডব্লিউএমএস) ভারতের জিন্দাল স্টিল অ্যান্ড পাওয়ার কোম্পানির কাছে প্রায় ৫০ কোটি টাকা দামের দুটি জাহাজ হস্তান্তর করেছে। জাহাজদুটির ধারণ ক্ষমতা মোট (কার্গো, জ্বালানি, পানি, যাত্রী এবং নাবিক) ৮ হাজার ডেডওয়েট টন, যেখানে একটি কার্গোর ধারণ ক্ষমতা ৮ হাজার ৯৮৮ কিউবিক মিটার।
সাধারণ অবস্থায় এবং আবহাওয়ার পরিস্থিতি বিবেচনায় এগুলোর গড় গতি হবে ঘণ্টায় ১০ নটিক্যাল মাইল বা প্রায় ১৮ দশমিক ৫ কিলোমিটার।
২০১৫ সালে ভারতীয় কোম্পানি যে চারটি জাহাজ নির্মাণের অর্ডার দিয়েছিলো তার শেষ জোড়া হলো জেএসডব্লিউ সিংহগড় এবং জেএসডব্লিউ লৌহগড় নামের জাহাজ দুটি।
এর আগে, ২০১৭ সালের অক্টোবরে জেএসডব্লিউ রায়গড় এবং জেএসডব্লিউ প্রতাপগড় জাহাজ দুটি হস্তান্তর করা হয়েছিলো।
নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ডব্লিউএমএস কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এগুলো বাংলাদেশে নির্মিত সবচেয়ে বড় জাহাজ এবং এ ধরনের জাহাজ প্রথমবারের মতো ভারতে রপ্তানি করা হচ্ছে।
গত ১১ জানুয়ারি ডব্লিউএমএসের তরফ থেকে জানানো হয়, জাহাজগুলো মুম্বাই ও গোয়ার মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত জয়গড় বন্দরে রাখা হবে।
জানা গেছে, জয়গড় বন্দর থেকে আকরিক লোহা ও কয়লা বহন করে ধর্মতার বন্দরে নিয়ে যাবে এই জাহাজগুলো। ধর্মতার বন্দরটি মহারাষ্ট্রের রায়গড় জেলার দলভিতে অবস্থিত।
ডব্লিউএমএস চেয়ারম্যান মো. সাইফুল ইসলাম জানান, জাহাজ দুটি নদী পথে চলাচল করলেও, যেকোনো সমুদ্রপথে চলাচলের ক্ষমতা এগুলোর রয়েছে।
গত ১০ জানুয়ারি কর্ণফুলী নদীর তীরে অবস্থিত চট্টগ্রাম বোর্ড ক্লাব ওয়েস্টার্ন ক্রুজে ডব্লিউএমএসের জাহাজগুলোর হস্তান্তর অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। এ সময় বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি জানান, এ ধরনের পণ্য রপ্তানি বাংলাদেশের জন্য একটি মাইলফলক। এ সময় ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাস। সেসময় দুই দেশের বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরও উন্নত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

১৩ই জানুয়ারি ২০২০


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here