মায়ের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনে শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স এর " শ্রীচরনেষু মা " অনুষ্ঠান - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

রবিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

মায়ের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনে শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স এর " শ্রীচরনেষু মা " অনুষ্ঠান



নিজস্ব প্রতিনিধি,আগরতলাঃ
" শ্রীচরনেষু মা " শীর্ষক এক অভিনব অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে মায়ের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে অসাধারণ এক ভালোবাসার দিবস পালন করলো শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স। ১৪ ফেব্রুয়ারি আগরতলার গান্ধিগ্রাম সংলগ্ন সান্ধ্যনীড় বৃদ্ধাবাসে এই মহতি অনুষ্ঠানটি হয়।ভ্যালেন্টাইন ডে'-কে কেন্দ্র করেই সংস্থার পক্ষ থেকে মায়ের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের হৃদয়স্পর্শী এই পর্বটি এবছর রাখা হয়েছিলো যাতে ভালোবাসার এই দিনটিকে উৎসর্গ করা যায় মায়েদের উদ্দেশ্যে-মাতৃত্বের উদ্দেশ্যে।সান্ধ্যনীড় বৃদ্ধাবাসকে বেছে নেওয়া হয়েছিলো অনুষ্ঠানস্থল হিসেবে যাতে জীবন সায়াহ্নে পৌঁছে যাওয়া মানুষদের মুখে এক টুকরো উজ্জ্বল হাসি উপহার দেওয়া যায়। " শ্রীচরনেষু মা " অনুষ্ঠানটির মূল ভাবনা ছিলো শুধু প্রথাগত প্রণামেই মায়ের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর ঊর্ধ্বে উঠে মায়ের সুস্বাস্থ্য বজায় রাখা এবং তাকে উৎফুল্ল রাখার প্রচেষ্টায় ব্রতী হওয়া।

অনুষ্ঠানের সূচনাপর্বে প্রখ্যাত যোগগুরু যোগী বিশ্ব শারীরিক স্বাচ্ছন্দ্য ও মানসিক উৎফুল্লতার ক্ষেত্রে যোগের গুরুত্ব ব্যাখ্যা করলেন।পরবর্তী পর্যায়েই শুরু হয় মায়েদের সংবর্ধনা জ্ঞাপন অনুষ্ঠান।
রাজ্যের যশস্বী কন্যা সন্তানেরা এগিয়ে এলেন নিজের মা'কে সংবর্ধনা জানাতে।মা-মেয়ের যুগলে ছিলেন, দীপালি চক্রবর্তী ও পুষ্পিতা চক্রবর্তী,স্বপ্না রায় ও অনিন্দিতা রায়, শিপ্রা ঘোষ ও সোমা নন্দী,মিতা রায় ও দূর্বাঞ্জলি রায়, মধুমিতা ভট্টাচার্য ও নন্দিতা ভট্টাচার্য এবং বন্দনা দত্ত ও নন্দিতা দত্ত।
এরপর যোগী বিশ্ব সহ " শ্রীচরনেষু মা " পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা  সান্ধ্যনীড়ের মায়েদের সংবর্ধনা জ্ঞাপন করেন। অনুষ্ঠানটিকে একটি পূর্ণাঙ্গ রূপ দিতে শ্যাম সুন্দর এর পক্ষ থেকে মধ্যাহ্নভোজ এবং একটি সাংস্কৃতিক পর্বেরও আয়োজন করা হয়।
এদিন রাজ্যের স্বনামধন্য সাংস্কৃতিক সংস্থা ' বৈঠকী ঘরানা ' এই সাংস্কৃতিক পর্বে তাদের মনোগ্রাহী পরিবেশনায় সবার মন জয় করে নেয়।অনুষ্ঠানটির প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স এর কর্ণধার রূপক সাহা জানান, ''জুয়েলারি শোরুমের চার দেওয়ালের মধ্যে আমরা নিজেদের আটকে রাখিনি।উৎকর্ষের সন্ধানে আমরা পা ফেলেছি বাইরের জগতেও।আর এবছর আমাদের হীরক জয়ন্তী বর্ষেও আমরা সমাজের উজ্জ্বল এবং গুরুত্বপূর্ণ দিকগুলিকে মানুষের সামনে তুলে ধরছি বর্ণময় উপস্থাপনার মাধ্যমে।"
তিনি আরও বলেন, " সান্ধ্যনীড়ের মতো বৃদ্ধাবাসে " শ্রীচরনেষু মা " অনুষ্ঠান বয়স্ক মানুষদের মুখে আনন্দের আলো ফুটিয়েছে দেখে আমরা আপ্লুত।আর এই উপলক্ষে মায়েদের এবং মাতৃত্বকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করতে পেরে আমরা সত্যি খুব খুশি।কারণ পৃথিবীতে মা এবং মাতৃত্বের চেয়ে দামী আর কিছু হতে পারেনা।"
এদিন এক আনন্দঘন পরিবেশে সবাই মিলে দিনটিকে এক অন্য মাত্রায় পৌঁছে দেয়।

ছবিঃ নিজস্ব

১৬ই ফেব্রুয়ারি ২০২০  

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here