দায়িত্ব বুঝে নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছেন বিক্রম দোরাইস্বামী ঃ বাংলাদেশ - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

test banner

Post Top Ad

test banner

মঙ্গলবার, ৬ অক্টোবর, ২০২০

দায়িত্ব বুঝে নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছেন বিক্রম দোরাইস্বামী ঃ বাংলাদেশ

আবু আলী, ঢাকা, আরশিকথা ॥ ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের পরবর্তী হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী তার দায়িত্ব বুঝে নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছেন। মঙ্গলবার দিনের সূচনাতে যান পররাষ্ট্র দপ্তরে। সেখানে রাষ্ট্রাচার প্রধান মো. আমানুল হকের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠক বিষয়ে একটি সচিত্র টুইট করেছেন বিক্রম নিজেই। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, কূটনৈতিক শিষ্টাচার মতে, যে কোন দেশে মিশন প্রধানের পদে ডেসিগনেট বা মনোনিত ব্যক্তিত্বের প্রথম সাক্ষাৎ হয় প্রটোকল বা রাষ্ট্রচার বিভাগে। সেখানে নয়া দূতের ক্রিডেনশিয়াল বা পরিচয়পত্রের কপি সাবমিট করে প্রেসিডেন্ট, রাজা, রাণী, বাদশাহ বা সম্রাটের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্রিডেনশিয়াল সাবমিশনের অ্যাপয়েন্টমেন্টসহ অন্যান্য প্রস্তুতির বিষয়ে আলোচনা হয়। ভারতীয় দূত বিক্রম মঙ্গলবারের বৈঠকে ওই আলোচনাটাই সেরেছেন। আগামী ৮ ই অক্টোবর বিকাল ৫ টায় বঙ্গভবনে ভারতীয় দূতের পরিচয়পত্র পেশের সময় নির্ধারিত হয়েছে। তবে তার ২৪ ঘণ্টা আগে নয়া দূতের করোনা টেস্ট হবে, ওই টেস্টের রেজাল্ট নেগেটিভ হলেই কেবলমাত্র বঙ্গভবনে দরজা খুলবে। এরআগে, দিল্লি থেকে ত্রিপুরা হয়ে সড়ক পথে সোমবার সকালে সীমান্তের আখাউড়া-আগরতলা ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে এক ব্যতিক্রমী যাত্রা শেষে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন ভারতীয় দূত বিক্রম। সেখান থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনার আগে হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন। তিনি বলেন, আমার সৌভাগ্য এমন একটি দায়িত্ব নিয়ে বাংলাদেশে এসেছি। দুই দেশের অত্যন্ত উন্নত সম্পর্ক আরো দৃঢ় করার বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে চাই। তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও দেশটির মানুষ আমাদের বন্ধু। যোগাযোগ বৃদ্ধির জন্য ভিসা প্রদানের প্রক্রিয়া পুরোপুরি চালুর আশ্বাস দিয়ে তিনি বলেন, চলমান করোনা পরিস্থিতির কারণে ভিসা প্রক্রিয়া কতোটা চালু করা যায়? তা ভেবে দেখা হবে। নৌ, রেল ও সড়ক পথ উন্নয়ন এবং বাণিজ্য সম্প্রসারণের বিষয়েও গুরুত্ব দেয়ার কথা বলেন তিনি। ভারতীয় ফরেন সার্ভিসের ৯২ ব্যাচের কর্মকর্তা বিক্রম দোরাইস্বামী সর্বশেষ অতিরিক্ত সচিব হিসেবে দিল্লির সাউথ ব্লকে আন্তর্জাতিক সংগঠন ও সম্মেলন বিভাগের দায়িত্ব সামলেছেন। তামিলনাড়ুর বাসিন্দা বিক্রম দোরাইস্বামীর বাবা ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে ভারতীয় বিমান বাহিনীতে সদস্য হিসেবে মিত্রবাহিনীর হয়ে তৎকালীন পশ্চিম পাকিস্তান সীমান্তে যুদ্ধ করেছেন। হিন্দুস্তান টাইমসের রিপোর্ট মতে পররাষ্ট্র সার্ভিসে যোগদানের আগে বিক্রম কিছু দিন সাংবাদিকতাও করেছেন। ইতিহাস বিষয়ে মৌলিক পড়াশোনা রয়েছে তার। উল্লেখ্য, প্রায় দেড় বছর ঢাকায় দায়িত্বপালনকারী হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাশ ২রা অক্টোবর তার ঢাকা মিশনের সফল সমাপ্তি টেনেছেন। এরইমধ্যে তিনি সাউথ ব্লকে সচিব (পূর্ব এশিয়া) হিসেবে দায়িত্ব বুঝে নিয়েছেন।


আরশিকথা

৬ই অক্টোবর ২০২০
 

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

test banner