অতীতের সব রেকর্ডকে ম্লান করে এবার মাধ্যমিকে সেরা দশে ২২ কৃতী - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

মঙ্গলবার, ১২ জুন, ২০১৮

অতীতের সব রেকর্ডকে ম্লান করে এবার মাধ্যমিকে সেরা দশে ২২ কৃতী

তন্ময় বনিক,আগরতলাঃ
ত্রিপুরা মধ্যশিক্ষা পর্ষদ পরিচালিত মাধ্যমিক পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। এবছর সেরা দশ এর তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে ২২ জন ছাত্রছাত্রী। যা অতীতের সমস্ত রেকর্ডকে ম্লান করে দিয়েছে। তবে পাশের হার গতবারের চাইতে কমে দাঁড়িয়েছে ৫৯.৫৯% । গত বছর যা ছিলো ৬৭.৩৮% । এবছর নতুন সিলেবাসে পরীক্ষায় পাশ করেছে ২১,৪০৮ জন ছাত্রছাত্রী। ফলপ্রকাশ করা হয়েছে গ্রেডেশানের ভিত্তিতে।সি, বি, বি প্লাস, এ, এ প্লাস এবং এএ- এই ছয়টি গ্রেডেশানে নম্বর ভাগ করা হয়। মঙ্গলবার(১২জুন) পর্ষদ সভাপতি মিহির কান্তি দেব এক সাংবাদিক সম্মেলনে ফলাফল প্রকাশ করেন। পাশের হার কমে যাওয়ার কারণ সম্পর্কে বলেন, এবছর নতুন সিলেবাসে গ্রুপ বেনিফিট নেই। সব বিষয়ে পাশ নম্বর তুলতে পারলেই পাশ হিসেবে গণ্য করা হয়েছে। তবে অংকের ফলাফল অধিকাংশ ছাত্রছাত্রীদের খারাপ হওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন পর্ষদ সভাপতি। 
মোট ৯৮৪ টি স্কুল থেকে এবছর ছাত্রছাত্রীরা মাধ্যমিক পরীক্ষা দেয়। সবক'টি স্কুলে অংকের শিক্ষক আছেন কিনা তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন পর্ষদ সভাপতি। এবিষয়ে তিনি শিক্ষাদপ্তরের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। উত্তরপত্র পুনরায় মূল্যায়ন করাতে ইচ্ছুক ছাত্রছাত্রীদের আগামী ১৮ জুনের মধ্যে নিজ নিজ স্কুলে আবেদন করতে হবে। স্কুলগুলিকে তা পর্ষদে পাঠিয়ে দিতে হবে ২১ জুনের মধ্যে। এদিকে যাদের পাশ নম্বর ১৫০ উঠেছে কিন্তু কোনও বিষয়ে ফেল তাদের সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষার সুযোগ দেওয়া হবে। এরজন্য ফর্মফিলাপ করে ১৯ জুনের মধ্যে স্কুলে জমা দিতে হবে। স্কুলগুলিকে তা ২২ জুনের মধ্যে পর্ষদে পাঠিয়ে দিতে হবে। ৮ জেলায় ৮ টি সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষাকেন্দ্র খোলা হবে। কবে পরীক্ষা হবে তা বিজ্ঞাপন দিয়ে পরবর্তী সময় জানিয়ে দেওয়া হবে বলে জানান পর্ষদ সভাপতি। 
এবছর কৃতীদের তালিকায় প্রথম স্থান অর্জন করে নেতাজী সুভাষ বিদ্যানিকেতনের ছাত্র আকাশদীপ দে। তার প্রাপ্ত নম্বর ৪৮৬ । 
দ্বিতীয় স্থান লাভ করে পাঁচজন ছাত্রছাত্রী। ৪৮০ নম্বর পেয়ে দ্বিতীয় স্থানাধিকারীরা হলো উদয়পুর ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের দেবকী দেবনাথ ও আশিক আলম, বিলোনিয়া সরকারী ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের আবীর দেবনাথ, বিবেকানন্দ শিশুনিকেতনের দীপজয় রুদ্র শর্মা ও শিক্ষা নিকেতনের শুভজিৎ চক্রবর্তী। তৃতীয় হয় উদয়পুর ইংরেজি মাধ্যম স্কুলেরই সৌরভ চক্রবর্তী। তার প্রাপ্ত নম্বর ৪৭৮ । একই স্কুলের কৃতী ছাত্রী শ্রেয়া সাহা ৪৭৭ নম্বর পেয়ে চতুর্থ হয়। পঞ্চম স্থান অধিকার করেছে তিন কৃতী ছাত্রছাত্রী। ৪৭৫ নম্বর পেয়ে পঞ্চম হয় উদয়পুর ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলেরই অংকিতা দেবনাথ, আর্য কলোনির রুচিকা সরকার ও বিলোনিয়া সরকারী ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের সায়নিক সূত্রধর। ৪৭৪ নম্বর পেয়ে ষষ্ঠ হয়েছে উদয়পুর ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের অনুস্কা সাহা ও হেনরি ডিরোজিও একাডেমীর সৌগত দেবনাথ। ৪৭৩ নম্বর পেয়ে সপ্তম হয় উদয়পুর ইংরেজি মাধ্যমেরই স্বর্ণদীপা মজুমদার। অষ্টম হয়েছে নেতাজী সুভাষ বিদ্যানিকেতনের শুভ্রজিৎ দেব। তার প্রাপ্ত নম্বর ৪৭২ । ৪৭১ নম্বর পেয়ে নবম হয় বিলোনিয়া সরকারী ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের অনুপম দত্ত, বৃন্তক শিক্ষা নিকেতনের অংকিতা বৈদ্য ও উমাকান্ত একাডেমী ইংলিশ মিডিয়ামের রীতভেশ দেবনাথ। এবছর দশম স্থান অর্জন করে চার কৃতি পরীক্ষার্থী। ৪৭০ নম্বর পেয়ে দশম স্থানাধিকারীরা হলো উদয়পুর ইংলিশ মিডিয়ামের অদিতি সেন, মোহনপুর দ্বাদশ শ্রেণী বিদ্যালয়ের অংকন দেব, নেতাজী সুভাষ বিদ্যানিকেতনের নিকিতা ঘোষ ও শিশুবিহার স্কুলের বর্ণিতা সূত্রধর। 

ছবিঃ সুমিত কুমার সিংহ
১২ই জুন ২০১৮ইং                      

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here