ঢাকায় বেলুনের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ৫ শিশু নিহত - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

বুধবার, ৩০ অক্টোবর, ২০১৯

ঢাকায় বেলুনের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ৫ শিশু নিহত

আবু আলী, ঢাকা ॥
বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার রূপনগর আবাসিক এলাকায় মনিপুর স্কুলের পাশে বেলুনের গ্যাসের সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়ে পাঁচ শিশু নিহত হয়েছে। এই ঘটনায় আহত হয়েছে আরও ১৭ জন। রূপনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম বলেন, ৩০ অক্টোবর বুধবার বিকেল ৩টার দিকে বেলুনে গ্যাস ভরানোর সময় সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়। আহতদের মধ্যে ১৫ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্য দুজনকে নেওয়া হয় সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। 
পুলিশ জানায়, রূপনগর এলাকার ১১ নম্বর সড়কের মাথায় মনিপুর স্কুলের পাশে বিস্ফোরণটি ঘটে। বেলুনে গ্যাস ভরানোর সময় শিশুরা সেখানে জড়ো হয়েছিল। পুলিশের পাশাপাশি ফায়ার সার্ভিস উদ্ধার অভিযানে গেছে। ফায়ার সার্ভিসের এক কর্মকর্তা বলেন, বিস্ফোরণের ধাক্কায় নিহতদের লাশ ছিন্নভিন্ন হয়ে যায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিস্ফোরণের বিকট শব্দ শোনার পর তারা দেখেন যে ১০-১২ জন পড়ে রয়েছে।  নিহত শিশুদের বয়স ৭ থেকে ১৪ বছরের মধ্যে।
বিস্ফোরণের সময় পাশেই ছিলেন শরিফ মাহমুদ। তিনি জানান, সকাল সাড়ে ১১টা থেকে এক লোককে সেখানে গ্যাস বেলুন বিক্রি করতে দেখেছিলেন তিনি। ঘটনার পর পুরো জায়গাটি রক্তে ভিজে যায়। মিরপুর ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আনোয়ার হোসেন বলেন, তারা পাঁচটি মরদেহ পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছেন। দমকলের আরেকজন কর্মকর্তা জানান, নিহতদের দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে গিয়েছিল।
রূপনগরের স্থানীয় এক নারী বলেন, হতাহত শিশুরা সবাই পাশের একটি বস্তির। আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে এসেছিল এমন শিশুও হতাহতদের মধ্যে রয়েছে। বিস্ফোরণের পর বহু লোকজন ঘটনাস্থলে ভিড় জমান। এক সঙ্গে এত শিশুর মৃত্যুতে পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
বিস্ফোরণের ঘটনায় ‘কারও হাত নেই, কারও পা নেই, কারও নাড়িভুঁড়ি বেরিয়ে গেছে। কারও চেহারা ঝলছে গেছে। ছোপ ছোপ কালচে তাজা রক্ত রাস্তায় গড়াচ্ছে। জরুরি সেবা ৯৯৯ ও পুলিশ কর্মকর্তাদের কাছ থেকে ফোন পেয়েই ঢাকা মহানগর অ্যামুলেন্স অ্যাসোসিয়েশনের যে কর্মকর্তা রাজধানীর মিরপুরের রূপনগরে ছুটে গিয়েছিলেন, সেই প্রত্যক্ষদর্শী কর্মকর্তা ঠিক এভাবেই গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে ঘটনাস্থলের বর্ণনা দিচ্ছিলেন।
 সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া জানান, এক নারী ও তিন শিশুসহ চারজনকে মৃত অবস্থায় এই হাসপাতালে আনা হয়। আহতদের মধ্যে চারজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিস্ফোরণে নিহতদের শরীরের বিভিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গ ক্ষতবিক্ষত হয়। এ চারজনের দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। যে দুজন সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তারা বিপদমুক্ত।
গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে আসেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। তিনি বলেন, এ ঘটনা সম্পর্কে প্রানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অবহিত করা হয়েছে। আহত ও নিহতদের পাশে দাঁড়াতে তিনি নির্দেশনা দিয়েছেন।

৩০শে অক্টোবর ২০১৯

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here