সিডরের থেকেও শক্তিশালী আম্পান আঘাত হানবে আজ, ১০ ফুট জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

মঙ্গলবার, ১৯ মে, ২০২০

সিডরের থেকেও শক্তিশালী আম্পান আঘাত হানবে আজ, ১০ ফুট জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা

আবু আলী, ঢাকা ॥ খুলনা ও চট্টগ্রামের মধ্যবর্তী অঞ্চল দিয়ে আজ ভোরে আঘাত হানবে সুপার সাইক্লোন আম্পান। এরপর বিকেলের মধ্যে বাংলাদেশের উপক’ল অতিক্রম করতে পারে। আর আমাবস্যার কারনে ৫ থেকে ১০ ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসেরও সম্ভাবনা রয়েছে। সুপার সাইক্লোন হলেও অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় হিসেবে বাংলাদেশের উপকুলে আঘাত হানবে এটি। সোমবার রাতে এর কেন্দ্রে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ২৭০ কি.মি হওয়ায় বঙ্গোপসারের সবচেয়ে শক্তিশালী সাইক্লোন বা ঘূর্ণিঝড় হিসেবে উল্লেখ করা হয়। এর আগে ১৯৯৯ সালে, উড়িষ্যা সাইক্লোন সুপার সাইক্লোন ছিল। তবে তা বাংলাদেশে তেমন কোন প্রভাব ফেলে নি। ঘূর্ণিঝড় আম্ফান ভারতের পশ্চিমবঙ্গ দিয়ে উপক’লে আঘাত হানলেও এ বিস্তৃতি থাকবে বাংলাদেশের হাতিয়া পর্যন্ত। তবে আবহাওয়াবিদরা বলছেন, উপক’লে আঘাত হানার সময় এর গতিবেগ ঘণ্টায় ১৮০ থেকে ১৯০ কিলোমিটার হতে পারে। উপকুলীয় জেলা এবং আশপাশের দ্বীপ ও চরের নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৫ থেকে ১০ ফুট বেশি উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে। আবহাওয়াবিদ মনোয়ার হোসেন বলেন, ঘূর্ণিঝড় যখন ভ’মি স্পর্শ করে তখন ধীরে ধীরে এর গতি কমে। একবারে কমে না। আমাদের উপক’লীয় অঞ্চলে আজ শেষরাত থেকে বুধবার (২০ মে) সন্ধ্যা পর্যন্ত আম্ফানের প্রভাব থাকবে। ফলে ভোর থেকে এর গতি কমতে থাকবে। ভূমিতে চলে আসলে ১৪০ থেকে ১৬০ কিলোমিটার শক্তিতে আমাদের উপক’ল অঞ্চল অতিক্রম করতে পারে। এখন সুপার সাইক্লোন থাকলেও উপক’ল অতিক্রমের সময় অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। ইতোমধ্যে মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৭ নম্বর বিপদ সঙ্কেত দেখাতে বলা হয়েছে। চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরকে বলা হয়েছে ৬ নম্বর বিপদ সঙ্কেত দেখাতে। উপক’লীয় জেলা সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, নোয়াখালী, ফেনী, চট্টগ্রাম এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলো বিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে দ্রুত নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অফিস। আবহাওয়াবিদরা আরও বলছেন, সিডরের উৎপত্তি ও আম্ফানের উৎপত্তি বঙ্গোপসাগরের একই এলাকায়- আন্দামান দ্বীপপুঞ্জের কাছে। গত বছরের মে মাসে আরেকটি শক্তিশালী ঝড় ফনীও একই পথে আঘাত হেনেছিল, তার ছয় মাস পরের বুলবুলের গতিপথও ছিল প্রায় একই রকম। সুপার সাইক্লোন আম্পানের ব্যাস বড় বিধায় শেষ মুহুর্তেও সামান্য দিক পরিবর্তন করতে পারে। এটি উড়িষ্যা উপক’ল হয়ে উত্তর দিকে সরে পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশ উপক’লে আসবে। এবারও সুন্দরবন অংশ পাবে।

১৯শে মে ২০২০

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here