ভারত-বাংলাদেশ মালবাহী ট্রেন সার্ভিস চালু - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

রবিবার, ২৬ জুলাই, ২০২০

ভারত-বাংলাদেশ মালবাহী ট্রেন সার্ভিস চালু

আবু আলী, ঢাকা,আরশিকথা ॥
ভারত-বাংলাদেশ মালবাহী ট্রেন সার্ভিস চালু হয়েছে। ২৬ জুলাই রবিবার বেনাপোল-পেট্রাপোল রেল সংযোগ ব্যবহার করে প্রথম ভারতীয় মালবাহী ট্রেন বাংলাদেশে এফএমসিজি পণ্য ও কাপড় বোঝাই ৫০টি কন্টেইনার নিয়ে হস্তান্তর করে। কনটেইনার ট্রেনটি ভারতের কলকাতার মাঝেরহাটের কনটেইনার কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া লিমিটেডের (কনকোর) টার্মিনাল থেকে রওনা হয় এবং এটি বেনাপোল স্টেশনে গ্রহণ করা হয়। কনটেইনার ট্রেন পরিসেবা ভারতে কনটেইনার কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া লিমিটেডের মনোনীত ইনল্যান্ড কনটেইনার ডিপো এবং টার্মিনালসমূহের সঙ্গে বাংলাদেশ রেলওয়ের বিভিন্ন স্টেশনকে সংযুক্ত করার জন্য একটি স্থায়ী পরিসেবা হবে বলে জানায় ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশন।হাই কমিশনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, কনটেইনার ট্রেন সার্ভিস হলো একটি অতিরিক্ত পরিষেবা যা সনাতন ফ্রেইট ট্রেনস সার্ভিস এবং সম্প্রতি চালু হওয়া পার্সেল ট্রেন পরিষেবা ব্যতীত রেলপথে কার্গো পরিবহন করবে বাংলাদেশ-ভারত। কনটেইনার ট্রেন সার্ভিস শুরু করার জন্য, ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের সময় কন্টেইনার কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া এবং বাংলাদেশ কনটেইনার কোম্পানি লিমিটেড একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করে। এর প্রথম পরীক্ষামূলক ট্রেনটি কলকাতা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম স্টেশন (বিবিডাব্লিউ) পর্যন্ত ২০১৮ সালের ৩ এপ্রিল সফলভাবে পরিচালিত হয়। বর্তমানে কোভিড-১৯ মহামারীর উত্থানের সাথে সাথে সরবরাহ ব্যবস্থার পরিবর্তন ঘটেছে। উভয় দেশের সরকারি এজেন্সিগুলি দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের জন্য কার্যকর বিকল্প হিসেবে রেলপথকে ব্যবহার করে, দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যের অচলাবস্থা হ্রাস করার জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। এই নতুন চালু হওয়া কনটেইনার ট্রেন সার্ভিসের মাধ্যমে রেলপথে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যের এক বিশাল সুযোগ উন্মুক্ত হয়েছে এবং আশা করা হচ্ছে এই উদ্যোগ দুটি দেশের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্কে বড় ভূমিকা রাখবে।

২৬শে জুলাই ২০২০

1 টি মন্তব্য:

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here