জাপানে চিকিৎসাকর্মী ও বয়স্করা ভ্যাকসিন সুবিধায় অগ্রাধিকার পাবেনঃ জাপান,আরশিকথা - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

বুধবার, ১৫ জুলাই, ২০২০

জাপানে চিকিৎসাকর্মী ও বয়স্করা ভ্যাকসিন সুবিধায় অগ্রাধিকার পাবেনঃ জাপান,আরশিকথা

মিথুন রিবেরু, জাপান :

জাপান সরকার করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কারের পর দেশটির চিকিৎসা কর্মী ও বয়স্কদের অগ্রাধিকার দেবার জন্য এক খসড়া নীতিমালা তৈরি করতে প্রস্তাবনা করেছে। উল্লেখ্য, জাপান এই করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরির কাজ এরই মধ্যে অনেকটা এগিয়ে রাখছে। তবে এই সপ্তাহের প্রথম দিকে জাপান সরকার ভ্যাকসিন ব্যবহারে সুবিধা ভোগে অগ্রাধিকারের জন্য একটি খসড়া পরিকল্পনা তৈরির কাজ শুরু করবে বলে সরকারি একটি সূত্র জানিয়েছে। জাপানে কয়েকজন বিশেষজ্ঞের সমন্বয়ে উক্ত খসড়াটি নিয়ে আলোচনা করার জন্য করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ব্যবস্থা কমিটি গঠন করা হয়। প্রকৃতপক্ষে কারা অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে এই ভ্যাকসিন পেতে পারে, তার নীতিমালা তৈরি করাই হবে কমিটির মূল কাজ এবং আগামী শরৎ মৌসুমের মধ্যেই এটি চূড়ান্ত করার জন্য সময় সীমা বেধে দেয়া হয়েছে। বিশ্বজুড়ে করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কার করতে গবেষণা ও উন্নয়ন ত্বরান্বিত হচ্ছে। জাপানে প্রথম ক্লিনিকাল ট্রায়াল গত মাসের শেষদিকে শুরু হয়েছিল। বাস্তবে ব্যবহারের জন্য ভ্যাকসিনগুলো কখন পাওয়া যাবে তা স্পষ্ট না হলেও, সরকার আশা করছে আগামী বছরের প্রথমার্ধের প্রথম দিকে পাওয়া যেতে পারে। ২০১৩ সালে নভেল ইনফ্লুয়েঞ্জার জন্য ভ্যাকসিনগুলোকে অগ্রাধিকার দেওয়ার জন্য সরকারের নির্দেশিকা জারি করেছিল। তবে ভ্যাকসিনগুলো প্রথমে চিকিৎসক কর্মীদের দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। এরপর সংক্রামক রোগের প্রতিক্রিয়া পরিচালনা করছেন বেসামরিক কর্মচারীরদের উপর। তারপরে বিদ্যুৎ, গ্যাস ও পাবলিক ট্রান্সপোর্টের মতো মৌলিক অবকাঠামো সরবরাহকারী কর্মীদের পাশাপাশি যারা ব্যাংক এবং নার্সিং কেয়ার সুবিধাগুলিতে কর্মরত তাদের দেওয়ার কথা বলা হয়। নভেল করোনা ভাইরাসের জন্য সরকার একটি ভিন্ন পরিকল্পনা তৈরির প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে। কারণ ওই নভেল ইনফ্লুয়েঞ্জাটির বৈশিষ্ট এক ধরনের ছিল আর করোনা ভাইরাসটির বৈশিষ্ট আলাদা হওয়ায় এটির জন্যা ভিন্ন পরিকল্পনা তৈরি করছে সরকার। সরকার নতুন পরিকল্পনাটি এমনভাবে সাজাচ্ছে যাতে করে পর্যাপ্ত চিকিৎসা পরিষেবা নিশ্চিত করার দিকে প্রাথমিকভাবে মনোনিবেশ করা যেতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে। জাপানের কেন্দ্রীয় সরকার স্থানীয় সরকারগুলোকে আগস্টের প্রথম দিকে ভ্যাকসিনের অগ্রাধিকার প্রস্তাবটির বিষয়ে নিজেদের প্রস্তাবনা জমা দিতে বলা হয়েছে। একই সাথে তহবিল গঠনের বিষয়েও সরকার পরিকল্পনা করছে বলেও সরকারের একটি সূত্র জানিয়েছে। তবে নিশ্চিত করে বলা হয় যে, চিকিৎসা কর্মী ও বয়স্কদের পাশাপাশি যারা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে গুরুতর লক্ষণগুলো দেখা দেবে এবং যাদের চরম ভোগান্তির সম্ভাবনা রয়েছে তাদের ভ্যাকসিন দেওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে বলে আশা প্রকাশ করা হচ্ছে।

তথ্যসূত্র: জাপান টাইমস

আরশিকথা
১৫ই জুলাই ২০২০

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here