আগামী ২৫ নভেম্বর আগরতলা পুর নিগম সহ রাজ্যের কুড়িটি পুর ও নগর স্বশাসিত সংস্থার নির্বাচনঃ আগরতলা

নিজস্ব প্রতিনিধি,আগরতলা,আরশিকথাঃ


আগরতলা পুর নিগমসহ রাজ্যের কুড়িটি পুর ও নগর স্বশাসিত সংস্থার নির্বাচন আগামী ২৫ নভেম্বর, ২০২১ অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক বিজ্ঞপ্তি জারি হবে আগামী ২৭ অক্টোবর, ২০২১। আজ বিকেলে সচিবালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে স্টেট ইলেকশন কমিশনার মানিক লাল দে নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষনা করে একথা জানান। নির্ঘন্ট অনুযায়ী মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন হচ্ছে ৩ নভেম্বর, ২০২১। মনোনয়নপত্রগুলি পরীক্ষা করা হবে ৫ নভেম্বর, ২০২১। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ৮ নভেম্বর, ২০২১ তারিখের বিকাল ৩ টার মধ্যে। ২৫ নভেম্বর, ২০২১ সকাল ৭টা থেকে ভোট গ্রহন শুরু হবে এবং তা চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। যদি পুনরায় ভোট গ্রহনের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয় তবে ২৭ নভেম্বর, ২০২১ ভোট গ্রহণ করা হবে। ভোট গননা হবে ২৮ নভেম্বর, (২০২১। ঐদিন সকাল ৮টা থেকে ভোট গননা শুরু হবে। ৪ ডিসেম্বর, ২০২১-এর মধ্যে সমস্ত নির্বাচনী প্রক্রিয়ার কাজ সম্পন্ন করা হবে। ভোট গ্রহনের তারিখ ঘোষনার সঙ্গে সঙ্গেই আগরতলা পুর নিগমসহ ২০টি পুর ও নগর এলাকায় আদর্শ আচরনবিধি লাগু হয়ে গেছে। স্টেট ইলেকশন কমিশনার মানিকলাল দে জানান, সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচনের জন্য রাজ্য নির্বাচন কমিশন থেকে প্রয়োজনীয় সমস্ত রকম ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। পুর নির্বাচনে রাজ্যের ৮টি জেলার জেলাশাসক ও সমাহর্তাগণ হচ্ছেন ডিস্ট্রিক্ট মিউনিসিপ্যাল ইলেকশন অফিসার। ১৭টি মহকুমার মহকুমা শাসকগণ রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করবেন। এই মহকুমাগুলি হল ধর্মনগর, পানিসাগর, কৈলাসহর, কুমারঘাট, আমবাসা, কমলপুর, খোয়াই, তেলিয়ামুড়া, মোহনপুর, জিরানীয়া, বিশালগড়, সোনামুড়া, উদয়পুর, অমরপুর, বিলোনীয়া, শান্তিরবাজার এবং সাব্রুম। আগরতলা পুরনিগমের ক্ষেত্রে ১১৭ নং ওয়ার্ডের জন্য সদর মহকুমার অতিরিক্ত মহকুমা শাসক, ১৮-৩৪ নং ওয়ার্ডের জন্য সদর মহকুমার মহকুমা শাসক এবং ৩৫-৫১ নং ওয়ার্ডের জন্য পশ্চিম ত্রিপুরা জেলার অতিরিক্ত জেলাশাসক ও সমাহর্তাকে রিটার্নিং অফিসার হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে। স্টেট ইলেকশন কমিশনার জানান, বর্তমানে পুর নির্বাচনের মূল নির্বাচন ক্ষেত্র ৩৩৪টি। এরমধ্যে ৮৫টি নির্বাচনী ক্ষেত্র তপশিলি জাতি এবং ৮টি তপশিলি উপজাতির জন্য সংরক্ষিত। ১৫৭টি নির্বাচনী ক্ষেত্র মহিলাদের জন্য সংরক্ষিত। আসন্ন পুর নির্বাচনে মোট ৫ লক্ষ ৯৪ হাজার ৭৭২ জন ভোটার ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার রয়েছেন ২ লক্ষ ৯৩ হাজার ১৭৯ জন এবং মহিলা ভোটার ৩ লক্ষ ৭৭৭ জন। অন্যান্য ভোটার ১৬ জন। স্টেট ইলেকশন কমিশনার জানান, পুর নির্বাচনে মোট ৭৭০টি ভোটগ্রহন কেন্দ্র রয়েছে। ভোট গ্রহন করা হবে ইভিএম-এর মাধ্যমে। কোভিড গাইড লাইন মেনেই পুর নির্বাচন করা হবে। তিনি জানান, অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন পরিচালনার জন্য ইতিমধ্যে কমিশন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করেছে। প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দলই তাদের মতামত রাখার পাশাপাশি কমিশনকে সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচনের স্বার্থে সমস্ত রকম সহযোগিতার আশ্বাস দেন। অবাধ ও শান্তিপূর্নভাবে ভোট গ্রহণ করতে আরক্ষা প্রশাসনের সঙ্গেও কমিশন আলোচনা করছে। তিনি জানান, মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সময় প্রার্থীর সঙ্গে ৩ জন থাকতে পারবেন এবং ২টি হালকা যান ব্যবহার করতে পারবেন। মনোনয়নপত্র অনলাইনে স্টেট ইলেকশন কমিশনের ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করা যাবে এবং তা যথাযথভাবে পূরন করে স্বশরীরে প্রার্থী রিটার্নিং অফিসারের কাছে জমা দিতে পারবেন। তবে কেউ ইচ্ছা করলে রিটার্নিং অফিসারের অফিস থেকেও মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন।

      স্টেট ইলেকশন কমিশনার জানান, আগরতলা পুর নিগমসহ ২০টি পুর ও নগর সংস্থার মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছিল ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে। কিন্তু রাজ্যে করোনা অতিমারির জন্য নির্বাচন করা সম্ভব হয়নি। যদিও কমিশনের পক্ষ থেকে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছিল। বর্তমানে করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ায় কমিশন নির্বাচন সংগঠিত করার উদ্যোগ নেয়। নির্বাচনে কোভিড-১৯ গাইড লাইন মান্য করার জন্য রাজ্য নির্বাচন কমিশন আহ্বান রেখেছে। নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে প্রত্যেক ভোটারকে তাদের মতাধিকার প্রয়োগ করার জন্য আবেদন জানানো হয়েছে। পাশাপাশি নির্বাচনপূর্ব সুষ্ঠু, অবাধ ও শান্তিপূর্ণ সম্পন্ন কর বিভিন্ন রাজনৈতিক এবং জনগনের একান্ত সহযোগিতা কামনা করেছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। সাংবাদিক সম্মেলনে স্টেট ইলেকশন কমিশনের সেক্টেটারী প্রসেনজিৎ ভট্টাচার্য উপস্থিত ছিলেন।


আরশিকথা ত্রিপুরা সংবাদ

২২শে অক্টোবর ২০২১

 

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন