কেন্দ্রীয় সরকার চার-পাঁচটি কর্পোরেট পরিবারের কথাই ভাবছে : মানিক সরকার,ত্রিপুরা - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

test banner

Post Top Ad

test banner

মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

কেন্দ্রীয় সরকার চার-পাঁচটি কর্পোরেট পরিবারের কথাই ভাবছে : মানিক সরকার,ত্রিপুরা

নিজস্ব প্রতিনিধি,আগরতলা,আরশিকথাঃ



 কৃষক ও কৃষি বিরোধী আইন বাতিল, বিদ্যুৎ বিল প্রত্যাহার এবং ফসলের ন্যায্যমূল্যের দাবিতে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার ডাকে ২৭ সেপ্টেম্বর ভারত বনধের ডাক দেওয়া হয়। এর সমর্থনে মঙ্গলবার রাজধানীর রবীন্দ্রভবনে পাঁচটি বাম দলের যৌথ উদ্যোগে গণকনভেনশন হয়।

সিপিএম, সিপিআই, আরএসপি, ফরওয়ার্ড ব্লক এবং সিপিআইএমএল এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এই কর্মসূচিতে প্রধান বক্তা ছিলেন বিরোধী দলনেতা তথা সিপিএম এর পলিটব্যুরোর সদস্য প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার। বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি দেশের বর্তমান পরিস্থিতির জন্য বিজেপি সরকারকে দায়ী করে বনধের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে আলোচনা করেন। মানিকবাবু বলেন, দেশের বেশিরভাগ মানুষই হচ্ছে শ্রমিক-কৃষক দিনমজুর অর্থাৎ সাধারণ শ্রমজীবী অংশের লোক। কিন্তু বর্তমান সরকার তাদের কথা ভাবছে না।

মানুষের মৌলিক অধিকার খর্ব করছে। সাধারণ মানুষের উপর আক্রমন নামিয়ে এনেছে। এই পরিস্থিতিতে দেশের চার পাঁচটি কর্পোরেট পরিবার কোটি কোটি টাকা মুনাফা করছে। সরকার শুধু তাদের কথাই ভাবছে‌। পুঁজিপতি চার-পাঁচটি পরিবারের হাতে দেশের সম্পদ সঞ্চিত হচ্ছে। এই বাস্তব বিষয়গুলি সংসদে উত্থাপন করা হলেও সরকার পক্ষ থেকে তাতে কর্ণপাত করছে না। দাবিয়ে রাখা হচ্ছে বিরোধী দলের সাংসদদের। কিন্তু মানুষের স্বার্থে সংখ্যায় কম হলেও বামপন্থীরা লড়াই করে যাবে বলে জানান তিনি। সংখ্যায় কম হলেও বামপন্থীরা দেশের ৯০ শতাংশ মানুষের স্বার্থে কথা বলেন, যেহেতু সংসদের কথা বলতে দিচ্ছে না তাই রাস্তায় নামা ছাড়া উপায় নেই।

এদিনের গণ কনভেনশনের সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক জিতেন্দ্র চৌধুরী, প্রাক্তন মন্ত্রী অঘোর দেববর্মাসহ অন্যান্য নেতৃত্বরা উপস্থিত ছিলেন।


আরশিকথা ত্রিপুরা সংবাদ


ছবিঃ সুমিত কুমার সিংহ

২১শে সেপ্টেম্বর ২০২১

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

test banner