সিপিএমকে জবাব দিতে বিজেপি'র অস্ত্র ম্যালেরিয়া - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

test banner

Post Top Ad

test banner

সোমবার, ১৩ জুলাই, ২০২০

সিপিএমকে জবাব দিতে বিজেপি'র অস্ত্র ম্যালেরিয়া

তন্ময় বনিক,আগরতলাঃ
সিপিএম এর অভিযোগের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই জবাব দিলো বিজেপি।করোনার মোকাবিলায় সিপিএমকে জবাব দিতে ম্যালেরিয়ার অস্ত্র ব্যবহার করলো শাসক দল।সোমবার (১৩ জুলাই) বিকেলে প্রদেশ বিজেপি'র কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে দলের মুখপাত্র নবেন্দু ভট্টাচার্য বলেন,সিপিএম এর আমলে প্রতি বছর ম্যালেরিয়ায় মৃত্যুর মিছিল লেগে থাকতো।অথচ ঐ সময় সরকার কিছুই করতে পারেনি।সিপিএম বলছে অনাহারের কথা।কিন্তু বিগত আড়াই বছরে একটি মৃত্যুও অনাহারে হয়েছে বলে প্রমাণ করতে পারেনি।বিজেপি'র মুখপাত্র আরও বলেন,সিপিএম বলছে আইনশৃঙ্খলার অবনতির কথা।অথচ আইনশৃঙ্খলার অবনতির চেষ্টা অরাই করছে।পুলিশ এখন চাপমুক্ত হয়ে কাজ করছে।বলছে রক্তদান শিবিরে হামলার কথা।কিন্তু ওরা রক্তদান শিবিরের আড়ালে দলীয় মিটিং করছে।বিজেপি'র কোন কর্মী নয়।এলাকাবাসীরাই বাধা দিচ্ছে।রক্তদান করতে হলে জিবি,আইজিএম এর ব্লাড ব্যাঙ্কে গিয়ে করতেই পারেন।
নবেন্দু বাবু আরও বলেন,সিপিএম বলছে রাজ্যবাসীর আর্থিক দুরাবস্থার কথা।আমাদের প্রশ্ন, ২৫ বছরে ওরা অর্থনীতির কি ভিত তৈরি করেছেন? আড়াই বছরে রাজ্যের আমূল পরিবর্তন হয়েছে।সব সমস্যার সমাধান এই সময়ের মধ্যে করা সম্ভব নয়।রাজ্যে এখন কৃষকদের আয় বেড়েছে।কৃষির উতপাদন বেড়েছে।কৃষকরা আগের তুলনায় ভালো আছেন।এমপ্লয়মেন্ট এক্সচেঞ্জের তথ্য অনুযায়ী রাজ্যে বেকারের সংখ্যা কমেছে।শিল্প প্রতিষ্ঠান হচ্ছে।বেকাররা ঋণ নিয়ে স্বাবলম্বী হচ্ছে।দোকানপাট বেড়েছে।টিএসআর নিয়োগ প্রসঙ্গে বলেন,বাম আমলে চাকরিতে দুর্নীতির রেকর্ড গড়েছে।শিক্ষকতার চাকরি আর টিএসআর এর চাকরি ছিলো ক্যাডারদের পুনর্বাসন কেন্দ্র।এখন দুর্নীতি যেন না হয় তার জন্যই সিবিএসই এর মাধ্যমে লিখিত পরীক্ষা হবে।আর শারীরিক দক্ষতার পরীক্ষা নেবে বেসরকারি সংস্থা।তাতে জিপিএস সিস্টেম থাকবে।যোগ্যরাই চাকরি পাবেন।এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে শ্রী ভট্টাচার্যের সঙ্গে ছিলেন দলের আর এক মুখপাত্র প্রবীর চক্রবর্তী। 

ছবিঃ সুমিত কুমার সিংহ
আরশিকথা

১৩ই জুলাই ২০২০

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

test banner