মহিলা মোর্চা পার্টির মাতৃস্বরূপঃ মুখ্যমন্ত্রী - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

test banner

Post Top Ad

test banner

বুধবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২০

মহিলা মোর্চা পার্টির মাতৃস্বরূপঃ মুখ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি,আগরতলা,আরশিকথাঃ


আমাদের সমাজে নারীরাই শক্তির আধার।মাতৃশক্তির পরম্পরা বহমান।মহিলারা সেই পরম্পরা জারি রেখেছেন।পূজার্চনা থেকে ঘর চালনা - সবই মহিলারা করে থাকেন।কথাগুলো বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব।বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) উদয়পুরের রাজর্ষি হলে রাধাকিশোরপুর মণ্ডল যুব মোর্চার উদ্যোগে ও মহিলা মোর্চার সহযোগিতায় এক রক্তদান শিবির হয়।

সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন,একটা পরিবারকে মা যেভাবে একসূত্রে বেঁধে রাখেন মহিলা মোর্চাও তেমনি পার্টির মাতৃস্বরূপ।তারাই ভারতীয় জনতা পার্টিকে ঐক্যবদ্ধ রেখেছেন। মহিলা মোর্চার প্রশংসা করতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন,মাতৃশক্তি ছাড়া ত্রিপুরার মাটিতে ভারতীয় জনতা পার্টির প্রতিষ্ঠা পাওয়া সহজ ছিলোনা।যেখানেই সভা করতে যান সেখানেই মহিলাদের সংখ্যা বেশি দেখতে পান বলে স্বীকার করেন মুখ্যমন্ত্রী।তিনি তার বক্তব্যে প্রত্যাশিত ভাবেই কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলি তুলে ধরেন।
মুখ্যমন্ত্রী বলেন,প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দিশায় জনধন অ্যাকাউন্ট এক ঐতিহাসিক নজির তৈরি করেছে।আগে মায়েরা যে টাকা বালিশের নীচে রাখতেন এখন তা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে রাখতে পারছেন।আজ ত্রিপুরা শ্রেষ্ঠত্বের পথে এগিয়ে চলেছে।সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি শরদ অরবিন্দ বোবদে রাজ্য সফরে এসে এখানকার বাঁশকড়ুলের বিস্কুটের প্রশংসা করে গেছেন।মুখ্যমন্ত্রী বলেন,এর থেকে বড় প্রাপ্তি আর কি হতে পারে।আগে ত্রিপুরার পরিচয় ছিলো পার্টির,ব্যক্তির।এখন অন্য পরিচয় তৈরি হয়েছে।এদিনের এই অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী ছাড়াও ছিলেন বিধায়ক রামপদ জমাতিয়া,বিপ্লব ঘোষ সহ অন্যান্যরা।উক্ত অনুষ্ঠান ঘিরে দলীয় কর্মী সমর্থকদের মধ্যে উৎসাহ ছিলো চোখে পড়ার মতো। 


আরশিকথা ত্রিপুরা সংবাদ


ছবিঃ সংগৃহীত

২৩শে ডিসেম্বর ২০২০

 

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

test banner