লক ডাউনেও জামাইষষ্ঠীর রমরমা,আট থেকে আশি মজেছে বাঙালি - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

বৃহস্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০

লক ডাউনেও জামাইষষ্ঠীর রমরমা,আট থেকে আশি মজেছে বাঙালি

আরশিকথা ডেস্কঃ
ফি বছরের মতোই জামাইষষ্ঠীর বাজার ছিলো রমরমা।লক ডাউন আটকাতে পারেনি বাঙালির পার্বণ প্রিয়তাকে।করোনা আতঙ্কে ঘরবন্দি জামাইবাবাজিরা শাশুড়ি মায়ের কাছ থেকে মা ষষ্ঠীর আশীর্বাদ নিয়েছে।
 
মুখে মাস্কের বিধান রয়েছে পেটে নয়।তাই রসেবসে ভোজন পর্বটাও ঢালাও ভুঁড়িভোজের মধ্যেই কাটলো।বাজারে ফল,মিষ্টি,মাছ মাংসের আগুন দর।তাতে কী আসে যায় ! জামাইষষ্ঠী বলে কথা ! আট থেকে আশি সকলেই মজেছে জামাইষষ্ঠীর আমেজে।আমজনতা থেকে সেলিব্রেটি কেউ বাদ নেই।যে যার মতো করে লুটেপুটে নিয়েছে জামাইষষ্ঠীর মজা।প্রতিদিনকার ব্যস্ততাকে নিমেষে উড়িয়ে দিয়ে জামাইষষ্ঠীতে মা শাশুড়ি ঠাকরুনের আশীর্বাদ নিয়েছেন রাজ্যের বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ অমিতাভ রায় ।

সপরিবারেই দিনটি দারুণ ভাবে কাটিয়েছেন তিনি।ভুঁড়ি ভোজনেও কোনও খামতি ছিলোনা।ষষ্ঠী বলে কথা ! ছেলে-মেয়ের ষষ্ঠী,জামাইবাবাজীদেরও ষষ্ঠী।রাজ্যের বিশিষ্ট শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ অশোক চক্রবর্তীও আজ পরিবারের সাথে আনন্দে আহ্লাদেই কাটিয়েছেন দিনটি।

তার মেয়ে রাজ্যের গুণী সঙ্গীতশিল্পী সোহিনী চক্রবর্তীকে মা বানিয়ে মায়ের হাত থেকে ষষ্ঠীর আশীর্বাদ বানা নিলেন ডাক্তারবাবু ও তার স্ত্রী সুস্মিতা চক্রবর্তী।দৈনন্দিন পেশার চাপ থেকে কিছুটা রেহাই পেতে জামাইষষ্ঠীর আনন্দে মজেছেন বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব অমিত ভৌমিক।সহধর্মিণী বিশিষ্ট আবৃত্তিশিল্পী শাওলী রায়কে সঙ্গে নিয়ে শ্বশুরালয়েই কাটিয়েছেন আজকের দিনটি।

মা ষষ্ঠীর আশীর্বাদ,কুলোর বা সুতোর বানা সব আশীর্বাদই নিয়েছেন এই শিল্পী দম্পতি।অমিত ভৌমিক তার শাশুড়িমা রাজ্যের প্রবীণ নাট্যশিল্পী,অভিনেত্রী মনিদীপা রায় এর স্নেহাতিশয্যেই কাটালেন গোটা দিন।সঙ্গীত মহলও বাদ যায়নি।
রাজ্যের বিশিষ্ট সংগীতশিল্পী সুদীপ্ত শেখর মিশ্রও রীতি ও পরম্পরা মেনে ষষ্ঠী নিয়েছেন শাশুড়ি মায়ের কাছ থেকে।রাজ্যের বিশিষ্ট লেখক ও গবেষক ডঃ আশিস কুমার বৈদ্যও তার স্ত্রী আজ জামাইষষ্ঠীতে আশীর্বাদ করেছেন মেয়ে ও মেয়ে জামাইকে।

দুপুরে ছিলো ভুঁড়ি ভোজের ঢালাও আয়োজন।রাজ্য ও রাজধানীর প্রায় প্রতিটি বাড়িতেই ছিলো জামাইষষ্ঠীর এক সুন্দর আয়োজন।করোনাসুর যতোই ক্ষমতাশীল হোক না কেন,জামাইষষ্ঠীর আনন্দকে ম্লান করতে পারেনি।সামাজিক দূরত্ব থাকলেও জামাইষষ্ঠীর পরবে মানসিক ভাবে কোনও দূরত্ব তৈরী হয়নি শাশুড়ি মা ও জামাইবাবাজীদের মধ্যে।উৎসব পার্বণ,কৃষ্টি বলে কথা ! 


২৮শে মে ২০২০    

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here