নতুনদের স্বাগত জানিয়ে আরশিকথা'র যুব উৎসব" ... নন্দিতা দত্ত,ত্রিপুরা - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

test banner

Post Top Ad

test banner

বৃহস্পতিবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

নতুনদের স্বাগত জানিয়ে আরশিকথা'র যুব উৎসব" ... নন্দিতা দত্ত,ত্রিপুরা

গাছের পাতা হলুদ হলে ঝড়ে পড়ে,মানুষের বয়েস হলে বলিরেখায় তার প্রমান হয়।প্রকৃতির নিজের নিয়মেই তা স্বাভাবিক।বয়েস বাড়লে অভিজ্ঞতায় আমরা উত্তর প্রজন্মের কাছে নিরাপত্তা খুঁজি।নবীন প্রবীনের মেলবন্ধনে সমৃদ্ধ হয় জাতি।আমাদের একটা অহং কাজ করে আমাদের প্রজন্ম যা করেছে সেটা আর কেউ করেনি,আর এখনকার ছেলে মেয়েদের কথা বলে লাভ নেই ওরা আত্মকেন্দ্রিক। এই কথাটা বলার সময় আমাদের মনে থাকেনা,আমরা যা করি উত্তর প্রজন্ম তা দেখেই শেখে এবং কালের নিয়মে যুক্তি বুদ্ধিতে আরেকটু এগিয়ে যায়।প্রবীনরা নবীনদের কথা শুনবে হাত বাড়াবে নবীনরা তাদের সমস্ত সক্ষমতা নিয়ে প্রবীনের সাহারা হবে।তাই অহং ছেড়ে বেরিয়ে রাস্তাটা মাপতে হয়।নবীনের নতুন ভাবনা আর প্রবীনের অভিজ্ঞতা সাহস হয়ে অনেক কিছু সৃষ্টি করে।


এই নবীনদের কথা মনে রেখেই আরশিকথা ১২ জানুয়ারি জাতীয় যুব দিবসে আগরতলা প্রেস ক্লাবে আয়োজন করেছিল নতুনদের স্বাগত জানিয়ে নতুনদের সমারোহ। এতে গানে এবং কবিতায় অংশ নেয় একঝাক কিশোর কিশোরীর সাথে এ প্রজন্মের কয়েকজন।যুবকরা যত বেশি কুসংস্কার মুক্ত হয়ে কি কেন জানতে আগ্রহী হয় তবে কেউ কিছু চাপিয়ে দিতে পারেনা এটা আমার ব্যক্তিগত মতামত।




















সেই সন্ধ্যার আয়োজন এ আদৃক ব্যান্ড তাদের গান দিয়ে মাতিয়েছে।কিশোর কিশোরীদের মধ্যে ছিল- আয়ুস,প্রতিকৃত, স্বপ্নিল ও অবন্তিকা।দ্বিতীয় পর্বে ছিলেন গানে দীপ্তনু চৌধুরি,সোমনাথ পাল,সুনন্দা সাহা,শুভ্রবিকাশ দে,কেয়া দেব,সুস্মিতা দত্ত,পুস্পিতা চক্রবর্তী, সুজাতা সোম। তবলায় সহযোগিতা করেছেন অনুপ দেব।








কবিতা পাঠ এ অংশ নেয়-
চিন্ময় চৌধুরী, রতন আচার্য,মৌসুমি কর,রাহুল শীল, কর্মিতা বনিক, সুস্মিতা ধর,দেবাশ্রিতা চৌধুরি,অর্পিতা আচার্য,মৃনাল কান্তি পন্ডিত,নন্দিতা রায়।
একটি বিশেষ পর্বে স্বামী বিবেকানন্দ এর চিকাগো বক্তৃতাটি পাঠ করে শোনায় শিশু শিল্পী আরাত্রিকা ভৌমিক। আরশিকথার সাহিত্য সংস্কৃতি ফোরামের ত্রিপুরা বিভাগের যুগ্ম আহ্বায়ক স্বপ্না ভট্টাচার্য এবং স্বর্নিমা রায় উপস্থিত ছিলেন।।
যুগ্ম প্রধান উপদেষ্টা ড আশীষ কুমার বৈদ্য এবং ড দেবব্রত দেবরায় নবীন প্রতিভাদের নিয়ে এই উদ্যোগের প্রশংসা করেন।সমগ্র অনুষ্ঠানটির পরিকল্পনা করেছেন আরশিকথার প্রধান সম্পাদক শান্তনু শর্মা।


নন্দিতা দত্ত,সাংবাদিক
ত্রিপুরা

৬ই ফেব্রুয়ারি ২০২০

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

test banner