আগরতলায় বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশনের উদ্যোগে ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ উদযাপনঃ ত্রিপুরা - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

test banner

Post Top Ad

test banner

রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১

আগরতলায় বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশনের উদ্যোগে ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ উদযাপনঃ ত্রিপুরা

নিজস্ব প্রতিনিধি, আগরতলা, আরশিকথাঃ

আগরতলাস্থ বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশন কর্তৃক যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ০৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ উপলক্ষে বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করে৷ এদিন সকাল ০৯ঃ০০ ঘটিকায় দুতালয় প্রাঙ্গণে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলনের পরই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়৷ সকাল ০৯ঃ১০ ঘটিকায় জাতির পিতাসহ মুক্তিযুদ্ধে সকল শহীদদের স্মরণে ০১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়৷ সকাল ০৯ঃ১১ ঘটিকায় দিবস উপলক্ষ্যে প্রদত্ত বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়৷ অতঃপর সকাল ০৯ঃ৩০ ঘটিকায় ঐতিহাসিক ০৭ মার্চের ভাষণের ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়৷ 

সকাল ০৯ঃ৪০ ঘটিকায় দিবসের তাৎপর্য নিয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়৷ আলোচনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন অত্র মিশনের প্রথম সচিব জনাব মোঃ জাকির হোসেন ভুঞা, বিশিষ্ট গবেষক ও শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিত্ব ড.দেবব্রত দেবরায়, মুক্তিযুদ্ধের সন্মাননা প্রাপ্ত ব্যক্তিত্ব শ্রী স্বপন কুমার ভট্টাচার্য, বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিত্ব আগরতলাস্থ রামঠাকুর কলেজের অধ্যাপক জনাব মোঃ মুজাহিদ রহমান, বিশিষ্ট সাহিত্যিক ও শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিত্ব ড.আশিষ কুমার বৈদ্য প্রমুখ এবং বিশিষ্ট সাংবাদিক সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শ্রী অমিত ভৌমিক এবং অত্র মিশনের প্রথম সচিব(স্থানীয়) জনাব এস.এম.আসাদুজ্জামান প্রমুখ৷








এছাড়াও ৩৯তম বইমেলায় অংশগ্রহণ করতে ত্রিপুরায় আগত চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তরের পরিচালক(প্রশাসন ও প্রকাশনা)  জনাব মোহাম্মদ আলী সরকার বক্তব্য পেশ করেন৷ 

সহকারী হাইকমিশনার জনাব মোহাম্মদ জোবায়েদ হোসেন তাঁর সমাপনী বক্তব্যে গভীর শ্রদ্ধার সহিত স্মরণ করেন বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্থপতি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে৷ 

সকাল ১০ঃ০০ ঘটিকায় শিশুদের অংশগ্রহণে জাতির পিতার ঐতিহাসিক ০৭ মার্চের  ভাষণের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়৷ ভাষণ শেষে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়৷


 
অনুষ্ঠানে ত্রিপুরা রাজ্য সরকারের যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, সিভিল সোসাইটির গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং আগরতলা মিশনের কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ সহ নানা শ্রেনী পেশার মানুষ মাস্ক পরিধান করে, সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে উপস্থিত হন৷


আরশিকথা বাংলাদেশ সংবাদ

৭ই মার্চ ২০২১

 

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

test banner