খেলাধুলা যুবসমাজকে অনুপ্রাণিত করে : ক্রীড়ামন্ত্রী, ত্রিপুরা

নিজস্ব প্রতিনিধি,আগরতলা,আরশিকথাঃ


খেলাধূলা শরীর সুস্থ রাখে ও মানসিক বিকাশ ঘটায়। খেলাধুলার মাধ্যমে সমাজে সৌহার্দ্য বজায় থাকে। বন্ধুত্ব সুদৃঢ় হয় ও যুবসমাজ অনুপ্রাণিত হয়। মঙ্গলবার পশ্চিম ত্রিপুরা জেলার জিরানীয়া মহকুমার শচীন্দ্রনগর উচ্চ বিদ্যালয়ের যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া দপ্তর আয়োজিত তৃতীয় পর্যায়ের রাজ্যভিত্তিক স্কুল ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করে একথা বলেন যুব বিষয়ক ও ক্রীড়ামন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী। আজ থেকে রাজ্যভিত্তিক অনুধু ১৪, ১৭ এবং ১৯ বালক ও বালিকা বিভাগের অ্যাথলেটিক্স ও টেবিল টেনিস প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। প্রতিযোগিতা চলবে আগামী ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত। রাজ্যভিত্তিক এই প্রতিযোগিতায় অ্যাথলেটিক্সে ২০০ জন ও টেবিল টেনিসে ১০ জন প্রতিযোগী অংশ নিয়েছে।

প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করে ক্রীড়ামন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী আরও বলেন রাজ্যে খেলাধূলার মান উন্নয়নে ব্যাপক উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। রাজ্য থেকে ক্রীড়া প্রতিভা খুঁজে বের করার লক্ষ্যে সরকার উদ্যোগ নিয়েছে। ভারত সরকারের খেলো ইন্ডিয়া কর্মসূচির হাত ধরে ত্রিপুরাতেও খেলো ত্রিপুরা কর্মসূচির মাধ্যমে খেলাধূলার প্রতি আকর্ষণ বাড়াতেও সরকার উদ্যোগ নিয়েছে। জাতীয়স্তরে রাজ্যের খেলোয়াড়দের তুলে ধরার লক্ষ্যে অনুর্ধ ১৪, ১৭ ও ১৯ বিভাগে স্কুলস্তরে প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হচ্ছে। ক্রীড়া প্রতিভার বিকাশে সরকার রাজ্যে উন্নত ক্রীড়া পরিকাঠামো গড়ে তোলার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ক্রীড়ামন্ত্রী বলেন, ভারতের খেলাধূলার মানচিত্রে রাজ্যকে সামনের দিকে তুলে ধরার লক্ষ্যে বিভিন্ন পরিল্পনা নেওয়া হয়েছে। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া দপ্তরের উপঅধিকর্তা শিমুল দাস। উপস্থিত ছিলেন জিরানীয়া পঞ্চায়েত সমিতির চেয়ারম্যান মঞ্জু দাস, ভাইস চেয়ারম্যান প্রিতম দেবনাথ, সমাজসেবী গৌরাঙ্গ ভৌমিক প্রমুখ।

 


আরশিকথা ত্রিপুরা সংবাদ

১৬ই নভেম্বর ২০২১

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন