মোবাইলে পরিচয়, প্রেমিকা মরতে বলায় প্রেমিকের ‘আত্মহত্যা’ঃ বাংলাদেশ - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

বৃহস্পতিবার, ১২ নভেম্বর, ২০২০

মোবাইলে পরিচয়, প্রেমিকা মরতে বলায় প্রেমিকের ‘আত্মহত্যা’ঃ বাংলাদেশ

প্রভাষ চৌধুরী, ঢাকা ব্যুরো এডিটর,আরশিকথাঃ বাংলাদেশের পটুয়াখালী সদর উপজেলার বড়বিঘাই ইউনিয়নের খাটাসিয়া বাজার এলাকার তানভির রহমান (২০) নামে এক যুবকের মরদেহ তার প্রেমিকার বাসা থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। তানভির রহমান জনতা স্কুলের শিক্ষক নুর ইসলাম মাস্টারের ছেলে। জানা যায়, দেড় বছর আগে পটুয়াখালীর এক স্কুলছাত্রীর সঙ্গে মোবাইলে পরিচয় হওয়ার পর তানভিরের সঙ্গে ওই মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তানভির প্রায়ই প্রেমিকার বাসায় আসা-যাওয়া করতেন। মেয়েটির বাবা-মা তাকে আপ্যায়নও করতেন। মঙ্গলবার বিকেলে তানভির প্রেমিকার বাসায় আসেন। রাতের খাওয়া শেষে দোতলায় ঘুমাতে যান। রাতে মেসেঞ্জারে কথা বলতেন দুই জন। তখন মান অভিমানের একপর্যায়ে ছেলেটি লিখেন, তিনি মরে যাবেন। মেয়েটি জবাব দেন ‘তুমি মরলে মরো। ’ পরে বুধবার (১১ নভেম্বর) দুপুরে মেয়েটির বাবা দোতলায় গিয়ে তানভিরের ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পান। বিষয়টি তিনি সন্ধ্যা পর্যন্ত গোপন রাখেন। পরে স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। পটুয়াখালী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকতার মোর্শেদ জানান, প্রায় দেড় বছর আগে মোবাইলে তানভিরের সঙ্গে পরিচয় হয় পটুয়াখালীর এক স্কুলছাত্রীর। গড়ে ওঠে প্রেমের সম্পর্ক। তাদের ঘনিষ্ঠার বিষয়টি উভয় পরিবারে জানাজানি হয়। তারা বাধা হয়ে দাঁড়াননি। এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা-মাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, আবেগ ও অভিমানে তানভীর আত্মহত্যা করতে পারে বলে প্রাথমিক ধারণা করা হচ্ছে। এদিকে রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তানভিরের পরিবারের পক্ষ থেকেও কোনো অভিযোগ করা হয়নি।


আরশিকথা বাংলাদেশ সংবাদ

১২ই নভেম্বর ২০২০
 

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here