হীরকজয়ন্তী বর্ষের সমাপ্তি পর্বে স্বর্ণশিল্পীদের অভূতপূর্ব সংবর্ধনা জ্ঞাপন শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স এর - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

test banner

Post Top Ad

test banner

রবিবার, ২১ জুন, ২০২০

হীরকজয়ন্তী বর্ষের সমাপ্তি পর্বে স্বর্ণশিল্পীদের অভূতপূর্ব সংবর্ধনা জ্ঞাপন শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স এর

নিজস্ব প্রতিনিধি,আগরতলাঃ
হীরকজয়ন্তী বর্ষকে স্মরণীয় করে তুলতে শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স এর 'সেলিব্রেটিং ডায়মন্ড' অনুষ্ঠানটি বছরভর চলেছে।এই অনুষ্ঠানের সমাপ্তি পর্বকে সর্বাঙ্গসুন্দর করে তোলার জন্য শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স রবিবার(২১ জুন) সেইসব গুণীজনদের সংবর্ধনা জ্ঞাপন করলো যারা সবার চোখের আড়ালে থেকে শিল্পসুষমার চমক ও রোশনাইতে ভরিয়ে তুলেছেন অলংকার প্রতিষ্ঠানের আনন্দময় দীর্ঘ ৬০টি বছরকে।
২০১৯ সালের ৫ নভেম্বর শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স এর প্রতিষ্ঠাতা গৌর চন্দ্র সাহা'র জন্মবার্ষিকীতে সূচনা হয়েছিলো 'সেলিব্রেটিং ডায়মন্ড' শীর্ষক অনুষ্ঠানটির।

উজ্জ্বল হীরের মতো জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে জীবন্ত কিংবদন্তিদের সামনে নিয়ে আসাই ছিলো এই অনুষ্ঠানের মূল লক্ষ্য।
নানা ধরনের সামাজিক কাজের মধ্য দিয়ে হীরকজয়ন্তী বর্ষটিকে স্মরণীয় করে রাখতে সচেষ্ট ছিলো শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স।এই উদ্যোগের সমাপ্তি পর্বেই ছিলো ২১ জুনের সেরা অধ্যায়টি।
সোনা গলিয়ে যেসব কারিগররা তিল তিল করে গড়ে তোলেন তিলোত্তমার মতো এক একটি অলংকার - সব প্রশংসা তো তাদেরই প্রাপ্য।দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে দূরগমনে সাময়িক বিধিনিষেধ এবং সংশ্লিষ্ট নিয়মকানুন বলবৎ থাকায় এই প্রতিষ্ঠানের দুই কর্ণধার রূপক সাহা এবং অর্পিতা সাহা সশরীরে আগরতলায় উপস্থিত থাকতে না পারলেও বিশেষ এই দিনটির জন্য তাদের বার্তা ভিডিও এর মাধ্যমে তুলে ধরা হয়।
এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির পদ অলংকৃত করেছিলেন ত্রিপুরা সরকারের পর্যটন এবং সংস্কৃতি বিভাগের মন্ত্রী প্রণজিৎ সিংহ রায়।তিনি গুণীজনদের সম্মানে ভূষিত করলেন।
বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, " শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স গত ৬০ বছর ধরে সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্র জুড়ে যে ধরণের কাজ করে চলেছে তার অকুণ্ঠ প্রশংসা করছি।আগামীদিনেও তাদের জয়যাত্রা অব্যাহত থাকুক এই কামনা করি।"শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স এর অন্যতম ডিরেক্টর অরপিতা সাহা জানান, " এই হীরকজয়ন্তী বর্ষ উদযাপন করা যাদের জন্য সম্ভব হয়েছে আমরা তাদেরকেই তা উৎসর্গ করেছি।" শ্যাম সুন্দর কোং জুয়েলার্স এর অপর ডিরেক্টর রূপক সাহা বলেন,অলংকারের কারিগররা আমাদের অস্তিত্বের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ এবং তাদের অবদানকে অবলম্বন করেই আমরা আজ এতোটা পথ পেরিয়ে এসেছি।তাদের সেই অবদানের সামনে আমরা আজ শ্রদ্ধায় অবনত।"দু'জনই সবার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।প্রসঙ্গত, কারিগরদের সম্মান অর্ঘ্যের মধ্যে ছিলো চিকিৎসা বিমার বন্দোবস্ত যা তাদের প্রতি যত্ন ও ভালোবাসাকেই অকপটে প্রক্রিতজনতাএদিন মোট ১০জন স্বর্ণশিল্পীকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।


ছবিঃ সুমিত কুমার সিংহ
২১শে জুন ২০২০ 

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

test banner