যুব সংগঠনের পর মহিলা সংগঠনের ঘোষণা তিপরা মথা দলেরঃ ত্রিপুরা - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

test banner

Post Top Ad

test banner

রবিবার, ৬ জুন, ২০২১

যুব সংগঠনের পর মহিলা সংগঠনের ঘোষণা তিপরা মথা দলেরঃ ত্রিপুরা

নিজস্ব প্রতিনিধি,আগরতলা,আরশিকথাঃ


সাংগঠনিক শক্তি বিস্তারের উপর বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছেন তিপরা দল। দলের সুপ্রিমো প্রদ্যোত কিশোর দেববর্মণ দলের মহিলা শাখা গঠনের ঘোষণা দেন। নয়া সংগঠনের নাম দেওয়া হয় তিপরা উইমেন ফেডারেশন। প্রদ্যোত বলেন, শীঘ্রই এর পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা দেওয়া হবে। কেন্দ্রীয় কমিটির পাশাপাশি থাকবে জেলা, ব্লক ও প্রাথমিক স্তরের কমিটি। প্রদ্যুৎ বলেন, মহিলাদের ছাড়া বড় কোনো কর্মসূচি সফল করা সম্ভব নয়। তাই মহিলাদের প্রাধান্য দিতে দলের মহিলা শাখা গঠন করা হয়েছে। তিনি নিজে তা দেখাশোনা করবেন। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল থেকে অনেক মহিলা নেতৃত্বরাই তিপরা দলে যোগ দিয়েছেন বলে জানান তিনি।

রবিবার সাংবাদিক সম্মেলনে এই ঘোষণা দেয়ার সময় প্রদ্যোতের সঙ্গে ছিলেন এডিসি'র চেয়ারম্যান জগদীশ দেববর্মাসহ মহিলা কর্মীরা। প্রদ্যোত এদিন পিসিসি সভাপতি পীযূষ কান্তি বিশ্বাসের প্রশংসা করলেও সমালোচনা করেন বামফ্রন্টের। তিনি বলেন, সিপিএমের আমলে ২৫ বছরে বঞ্চিত হয়েছে এডিসি। ৫ থেকে ১০ হাজার মানুষের উন্নয়ন হয়েছে। আর বঞ্চিত হয়েছেন নয় লক্ষের উপর মানুষ। তিনি এদিন বলেন, হিংসার রাজনীতিতে বিশ্বাস করেন না। তিপরা দলের লক্ষ্য হচ্ছে গ্রেটার তিপরা ল্যান্ড। ভিলেজ কাউন্সিলের সমস্যাগুলি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এডিসি'র সিইএম-কে তিনি বলেছেন মুখ্যমন্ত্রীকে বিষয়টি জানিয়ে চিঠি লেখার জন্য। দেখা যাক্ মুখ্যমন্ত্রী কি করেন। তারপর আইনি পথে হাঁটা যাবে। কারণ তাদের দৃষ্টিভঙ্গি একরকম, আর রাজ্য সরকারের দৃষ্টিভঙ্গি আরেক রকম।
এডিসি গঠন ষষ্ঠ তপশিল নিয়ে যে সমস্যা রয়েছে সে প্রসঙ্গ তুলে প্রদ্যোত বলেন, রাজ্যপালকে তিনি এডিসি'র উন্নয়ন, অর্থ বরাদ্দ ইত্যাদি বিভিন্ন ইস্যুতে জানাবেন। কিভাবে এডিসি বঞ্চিত হয়ে আসছে। কারণ রাজ্যপাল কেন্দ্রীয় সরকারেরই। এই সমস্যা গত ছয় মাস বা এক বছরের নয়। এডিসি গঠনের পর থেকেই সমস্যা লেগে রয়েছে। 


আরশিকথা ত্রিপুরা সংবাদ


ছবিঃ সুমিত কুমার সিংহ

৬ই জুন ২০২১

 

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

test banner