পুর ও নগর নির্বাচনে আক্রান্ত হলেই ধর্মঘট : প্রদেশ কংগ্রেস, ত্রিপুরা

নিজস্ব প্রতিনিধি,আগরতলা, আরশিকথাঃ


বিগত নির্বাচনগুলোর মতো যেন না হয়। প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা দিতে না দেওয়া, প্রার্থীদের বাড়িতে হামলা, দলীয় কর্মীদের উপর হামলা করে ভয়ের পরিবেশ সৃষ্টি করে রাখা- এসব করা চলবে না। নির্বাচন করে অবাধ, স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ ভাবে ভোট প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। নির্বাচন ঘোষণার পর দিন অর্থাৎ শনিবার কংগ্রেস ভবনের সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে একথা বললেন পিসিসিআই সভাপতি বীরজীৎ সিনহা। অন্যথায় কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলবে বলে হুঁশিয়ারি দেন তিনি। শুধু তাই নয় আক্রান্ত হলে ধর্মঘট ডাকা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। এদিকে বাংলাদেশের ঘটনার প্রেক্ষিতে রাজ্যে একটা অস্থির পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে। সেই বিষয়ে ২৫ অক্টোবর রাজ্যের প্রতিটি মহকুমার মহকুমা শাসকের কাছে একযোগে ডেপুটেশন দেওয়া হবে বলেও জানান। তিনি অভিযোগ করেন রাজ্যে সংখ্যালঘুরা একটা অজানা আতঙ্কে আছেন। গুজব ছড়ানো হচ্ছে বিভিন্ন মহল থেকে। প্রশাসন যেন এসব বন্ধ করতে সর্বদলীয় বৈঠক ডাকে। কংগ্রেস ধর্মনিরপেক্ষ দল। সকল ধর্মের উপর আস্থা রয়েছে কংগ্রেসের। তাই ধর্মকে ভিত্তি করে যেন কোন রকম অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে প্রশাসনকে সেই ব্যবস্থা নিয়ে রাখার দাবি জানান তিনি। কিছু কিছু সংগঠন উগ্র জাতীয়তাবাদের স্লোগান দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। রাজ্যে নতুন সরকার প্রতিষ্ঠার পর থেকে আইন-শৃঙ্খলা চরম অবনতি ঘটেছে বলে জানান বীরজিৎবাবু। তিনি বলেন, বিরোধীরা প্রতিদিন কোথাও-না-কোথাও আক্রান্ত হচ্ছে, খুনের ঘটনা ঘটছে, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে এবং শান্তি বজায় রাখতে প্রশাসনকে উপযুক্ত পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানান তিনি। প্রয়োজনে দল এ বিষয়ে সহযোগিতা করবে বলেও আশ্বাস দেন। এদিকে দল পুর নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য প্রস্তুত।

তিনি বলেন, প্রতিটি আসনে প্রার্থী দেওয়া হবে। যারা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে চায় তারা যেন ২৭ অক্টোবরের মধ্যে কংগ্রেস ভবনের যোগাযোগ করেন।


আরশিকথা ত্রিপুরা সংবাদ

২৩শে অক্টোবর ২০২১
 

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন