প্রকাশ্য দিবালোকে গুলিবিদ্ধ এক যুবক...তদন্তে পুলিশ - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

রবিবার, ১৭ জুন, ২০১৮

প্রকাশ্য দিবালোকে গুলিবিদ্ধ এক যুবক...তদন্তে পুলিশ

তন্ময় বনিক,আগরতলাঃ
প্রকাশ্য দিবালোকে এক যুবক কে গুলি। ঘটনা পূর্ব আগরতলা থানাধীন চন্দ্রপুরে জাতীয় সড়কের উপর। গুলিবিদ্ধ যুবকের নাম দেবব্রত দাসগুপ্ত। বর্তমানে সে জিবি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। রাজ্যে নয়া সরকার গঠিত হলেও অপরাধমূলক ঘটনা আগের মতই ঘটছে। রবিবার(১৭জুন) দিনদুপুরে আসাম-আগরতলা জাতীয় সড়কের উপর দুষ্কৃতীরা গুলি চালায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নম্বরবিহীন একটি বাইকে করে আসে দুই যুবক। পেছনের বসা যে যুবক গুলি চালায় তার মুখ গামছা দিয়ে ঢাকা ছিলো। গুলি চালানোর পর মুহূর্তের মধ্যেই দ্রুত কেটে পড়ে বাইকটি। সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে গুলিবিদ্ধ যুবক দেবব্রত দাসগুপ্ত। ছুটে আসেন রাস্তার পাশে থাকা জনগণ। তারাই পুলিশকে খবর দেন। ঘটনার প্রায় ৪৫ মিনিট পর পুলিশ আসে বলে অভিযোগ। 
এদিকে গুলিবিদ্ধ যুবককে নিয়ে যাওয়া হয় জিবি হাসপাতালে। সেখানে ট্রমা সেন্টারে তার চিকিৎসা শুরু হয়। পুলিশ জানিয়েছে, আহত যুবকের নাম দেবব্রত দাসগুপ্ত। বাড়ি বলদাখাল এলাকায়। বাবার নাম প্রবীর দাসগুপ্ত। এদিকে ঘটনার কিছুক্ষণ পর চন্দ্রপুর এলাকায় স্থানীয় জনগণ পথ অবরোধ করেন। তারা নিরাপত্তার দাবি তোলেন। পুলিশ দেরিতে আসায়ও ক্ষোভ ব্যক্ত করেন স্থানীয় জনগণ। শেষপর্যন্ত এসডিপিও সুমন মজুমদার ঘটনাস্থলে গিয়ে অবরোধকারীদের সঙ্গে কথা বলেন। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের আশ্বাস দিলে পথ অবরোধ মুক্ত হয়। এই ঘটনায় চন্দ্রপুর এলাকাস্তরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পরে। স্থানীয়রা দুষ্কৃতীদের কঠোর শাস্তির দাবি করেন। কি কারণে এই হামলা, পূর্ব শত্রুতার জের নাকি রাজনৈতিক বিবাদ তা এখনও জানা যায়নি। পূর্ব আগরতলা থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। গুলিবিদ্ধ যুবক কিছুটা সুস্থ হয়ে পুলিশের কাছে মুখ খুললে দুঃসাহসিক এই হামলার পেছনে কি রহস্য তা জানা যাবে বলে মনে করা হচ্ছে। ঘটনাস্থল থেকে কার্তুজের একটি খোল উদ্ধার করা হয়। বুকে গুলিবিদ্ধ যুবক দেবব্রত দাসগুপ্ত এখন জিবি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তার নিরাপত্তায় হাসপাতালে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ছবিঃ সুমিত কুমার সিংহ
১৭ই জুন ২০১৮ইং   

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here