আরো ৭১টি স্কুলকে সিবিএসসি বোর্ডে অন্তর্ভুক্ত করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে : শিক্ষামন্ত্রী, ত্রিপুরা - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

test banner

Post Top Ad

test banner

বৃহস্পতিবার, ২২ জুলাই, ২০২১

আরো ৭১টি স্কুলকে সিবিএসসি বোর্ডে অন্তর্ভুক্ত করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে : শিক্ষামন্ত্রী, ত্রিপুরা

নিজস্ব প্রতিনিধি,আগরতলা,আরশিকথাঃ


নতুন সরকারের তিন বছরের কার্যকালে ১৩০টি বাংলা মাধ্যমের স্কুলকে ইংরেজি মাধ্যমে রূপান্তরিত করা হয়েছে। ফলে রাজ্যে বর্তমানে ইংরেজি মাধ্যম স্কুল এর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৫৭ তে। ২০১৮ সালে আগে ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের সংখ্যা ছিল ১২৭টি। বৃহস্পতিবার শিক্ষাভবনের কনফারেন্স হলে সম্প্রতি ইংরেজি মাধ্যমে রূপান্তরিত স্কুলগুলোর প্রধান শিক্ষক, শিক্ষিকা- শিক্ষকসহ জেলা শিক্ষা আধিকারিকদের তিনদিনব্যাপী পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে আয়োজিত ভার্চুয়াল ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম এর সূচনা করে একথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ। এই অরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামে এবছর ইংরেজি মাধ্যমে রূপান্তরিত ৫৯ টি স্কুলের ১৭৭ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা, প্রধান শিক্ষকসহ ৮ টি জেলার জেলা শিক্ষা আধিকারিকরা অংশগ্রহণ করেন। সাতজন রিসোর্স পার্সন এই কর্মসূচির মাধ্যমে অংশগ্রহণকারীদের ইংরেজি মাধ্যম স্কুল পরিচালনা, ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষক-শিক্ষিকাদের মধ্যে ইংরেজিতে কথা বলা ও বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষতা বাড়াতে সহায়তা করবেন। এই কর্মসূচি আগামী ২৪ জুলাই পর্যন্ত চলবে।


অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে শিক্ষা মন্ত্রী আরো বলেন, ছাত্ররাই দেশের ভবিষ্যৎ। তাই রাজ্য সরকার প্রথম থেকেই গুণগত শিক্ষার মানোন্নয়নে কাজ করে চলছে। ইতিমধ্যে শিক্ষা ব্যবস্থায় পরিবর্তন আনার লক্ষ্যে শিক্ষা দপ্তর এনসিইআরটি সিলেবাস, সুপার-৩০, মুখ্যমন্ত্রী বিএড অনুপ্রেরণার যোজনা, শিক্ষাবর্ষের পরিবর্তন, সারা রাজ্যে একই প্রশ্নপত্রসহ ২৫ টি বিভিন্ন ধরনের যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে শিক্ষা মন্ত্রী আরো বলেন, এই সরকারের আমলে ২৯ টি স্কুলকে সিবিএসই বোর্ডের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। রাজ্যে গুণগত শিক্ষা সম্প্রসারণে আরো ৭১ টি স্কুলকে সিবিএসই বোর্ডের অন্তর্ভুক্ত করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। যা ত্রিপুরার মত ছোট রাজ্যের ক্ষেত্রে চিন্তাই করা যায় না।  সিবিএসই এর ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে রাজ্য বোর্ডের ইংরেজি মাধ্যমের ছাত্র-ছাত্রীদের প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য যোগ্য করে তোলার ক্ষেত্রে শিক্ষক-শিক্ষিকারা যাতে অগ্রণী ভূমিকা নিতে পারেন সেই লক্ষ্যেই এই অরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামের আয়োজন করা হয়েছে।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তরের অধিকর্তার চান্দনী চন্দ্রন,এসিইআরটি-এর অধিকর্তা এন সি শর্মা, রিসোর্সপার্সন অক্সিলিয়াম বালিকা বিদ্যালয়ের ডিরেক্টর সিস্টার সিলিন ডি কুনহা প্রমূখ।


আরশিকথা ত্রিপুরা সংবাদ


ছবিঃ সুমিত কুমার সিংহ

২২শে জুলাই ২০২১
 

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

test banner