গুন্ডিচা মন্দির থেকে স্বগৃহে গেলেন প্রভু জগন্নাথ,বলভদ্র ও দেবী সুভদ্রা - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

রবিবার, ২২ জুলাই, ২০১৮

গুন্ডিচা মন্দির থেকে স্বগৃহে গেলেন প্রভু জগন্নাথ,বলভদ্র ও দেবী সুভদ্রা

তন্ময় বনিক,আগরতলাঃ
প্রভু জগন্নাথ, বলভদ্র ও দেবী সুভদ্রা ফিরলেন নিজ বাড়িতে। মাসীর বাড়ি অর্থাৎ গুন্ডিচা মন্দির থেকে গেলেন স্বগৃহে। রথযাত্রার মতো ততটা জাঁকজমক না হলেও উল্টোরথ ঘিরে পুণ্যার্থীদের মধ্যে ভালোই সাড়া পাওয়া যায়। 
রবিবার(২২জুলাই) উল্টোরথ কিংবা ফেরা রথ। আগরতলায় জগন্নাথ জিউ মন্দির থেকে বিকেল প্রায় ৫ টা নাগাদ ফেরা রথে টান পড়ে। মন্দিরের মধ্যেই একটি পৃথক কক্ষ( গুন্ডিচা মন্দির) থেকে বিগ্রহ বের হয়ে রথে উপবিষ্ট হয়। 
রাজধানীর বিভিন্ন পথ পরিক্রমা করে রথ ফিরে আসে পুনরায় জগন্নাথ মন্দিরে। তারপর নানা উপাচার সেরে প্রভু জগন্নাথ, বলভদ্র ও দেবী সুভদ্রাকে মূল মন্দিরে নিয়ে বসানো হয়। 
রথযাত্রা উৎসব ঘিরে ন'দিন ব্যাপী বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠান, পুজাপাঠ, ধর্মকথা চলে জগন্নাথ জিউ মন্দিরে। এদিকে খারচি উৎসব শুরু হয়ে যাওয়ায় ফেরা রথ ঘিরে জগন্নাথ মন্দিরের সামনে মেলা খুব একটা জমে উঠেনি। কারণ ব্যবসায়ীদের অধিকাংশই এখন খারচি মেলায় রয়েছেন। ফেরা রথ ঘিরে ইসকন মন্দির কর্তৃপক্ষ ব্যপক আয়োজন করে। প্রভু জগন্নাথ, বলভদ্র ও সুভদ্রাকে তিনটি পৃথক রথে উপবিষ্ট করা হয়। পুণ্যার্থীরা ব্যপক উৎসাহ নিয়ে ইসকন এর রথ উৎসবে অংশ নেন। গুরুজি কনফারেন্স হলে অস্থায়ীভাবে নির্মিত গুন্ডিচা মন্দির থেকে তাদের রথ বের হয়। 
বিকেল ৫ টার পর ইসকন মন্দির কর্তৃপক্ষ তাদের রথ বের করে। রাজধানীর বিভিন্ন পথ পরিক্রমা করে ভগবানের রথ ফিরে যায় মঠ চৌমুহনীস্থিত ইসকন মন্দিরে। তারপর সেখানে নানা ধর্মীয় উপাচার সম্পন্ন করা হয়। সব মিলিয়ে বলা যায় রাজধানী আগরতলায় ন'দিন ব্যাপী রথযাত্রা উৎসব শান্তিপূর্ণ ভাবেই সম্পন্ন হয়েছে। 

ছবিঃ সুমিত কুমার সিংহ
২২শে জুলাই ২০১৮ইং         

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here