রাজ্যে আরও ছয়টি কলেজ গড়া হবে"...বললেন শিক্ষামন্ত্রী - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

সোমবার, ৬ আগস্ট, ২০১৮

রাজ্যে আরও ছয়টি কলেজ গড়া হবে"...বললেন শিক্ষামন্ত্রী

তন্ময় বনিক,আগরতলাঃ
 আগরতলার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত মহিলা মহাবিদ্যালয়ের ভিতর জঙ্গলাকীর্ণ নোংরা আবর্জনাপূর্ণ পরিবেশ। কলেজ ছাত্রীদের জন্য নেই কমনরুম। আরও আশ্চর্যের বিষয় হলো ছাত্রীদের মধ্যে হাতে গোনা কয়েকজন ছাড়া অন্যরা রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী রতনলাল নাথকে চেনেইনা। সোমবার(৬আগস্ট) মহিলা মহাবিদ্যালয় পরিদর্শন করে এমন অভিজ্ঞতার সাক্ষী হতে হলো খোদ শিক্ষামন্ত্রীকে। সম্প্রতি শান্তিরবাজার মহাবিদ্যালয় সফরের পর এদিন মহিলা মহাবিদ্যালয়ের কর্মসংস্কৃতি পরিদর্শনে যান শিক্ষামন্ত্রী। কলেজে পড়াশুনার হালহকিকৎ সম্পর্কে জানতে কথা বলেন ছাত্রী ও শিক্ষকশিক্ষিকাদের সঙ্গে। 
শিক্ষামন্ত্রী কলেজে গিয়ে দেখতে পান কলেজ ক্যাম্পাসের একটি বড় অংশ জঙ্গলাকীর্ণ হয়ে আছে। রয়েছে নোংরা আবর্জনার স্তূপ, যা এককথায় অস্বাস্থ্যকর। মহিলা মহাবিদ্যালয়ে পূর্বতন সরকারের আমলে কিছু নতুন বিল্ডিং উঠলেও নেই ছাত্রীদের জন্য কমনরুম। গাছতলায়, ক্লাসরুমের বারান্দায় কিংবা এখানে সেখানে দাঁড়িয়ে থাকতে হয় ছাত্রীদের। তারপর কয়েকটি ক্লাশে গিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ছাত্রীদের কাছ থেকে জানতে চান তিনি কে। অথচ দেখা যায় হাতে গোনা কয়েকজন ছাড়া কেউই জানেনা। রাজ্যের একমাত্র মহিলামন্ত্রীর নাম জানতে চান শিক্ষামন্ত্রী। তাও দেখা যায় একটি ক্লাশে তিনচার জনের বেশী কেউই জানেনা। কলেজের পরিকাঠামো ও কাজকর্ম সম্পর্কে অধ্যক্ষা সহ অন্যান্য শিক্ষকশিক্ষিকাদের কাছ থেকে খোঁজ নেন শিক্ষামন্ত্রী শ্রী নাথ। পরে সাংবাদিকদের তিনি জানান। কলেজে কমনরুম গড়ার জন্য পরিকল্পনা গ্রহণ করা হবে। ছাত্রীদের উপস্থিতি দেখে তিনি অবশ্য সন্তুষ্টিই ব্যক্ত করেন। শিক্ষামন্ত্রী জানান কলেজগুলিতে শিক্ষার্থীদের চাপ কমাতে আরও ছয়টি নতুন কলেজ গড়া হবে। এরমধ্যে পুরাতন আগরতলা ও জিরানিয়াতেও কলেজ খোলা হবে। এবছর সাধারণ ডিগ্রি কলেজগুলিতে ছাত্রছাত্রীদের ভর্তির সংখ্যা বেশী থাকায় সন্তোষ প্রকাশ করেন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি তথ্য দিয়ে বলেন, এবছর কলেজগুলিতে প্রথমবর্ষে ১৬ হাজার ৮৭১ জন ছাত্রছাত্রী ভর্তি হয়েছে। বাণিজ্য বিভাগে গতবছরের চাইতে এবছর ভর্তির সংখ্যা ৫২৬ থেকে বেড়ে ৬১২ হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী এদিন মহিলা মহাবিদ্যালয় পরিদর্শনের আগে রামনগর দ্বাদশ শ্রেণী বিদ্যালয়টি ফের পরিদর্শন করেন। শিক্ষার্থীদের উপস্থিতির হার বাড়ানো থেকে শুরু করে অন্যান্য সমস্যাগুলিরও সমাধান হয়েছে বলে এদিন দাবি করেন শিক্ষামন্ত্রী। প্রসঙ্গত, সম্প্রতি রামনগর দ্বাদশ শ্রেণী বিদ্যালয় পরিদর্শন করে অনেক দুর্বলতা নজরে এসেছিলো শিক্ষামন্ত্রীর।

ছবিঃ সুমিত কুমার সিংহ
৬ই আগস্ট ২০১৮ইং              

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here