হস্ততাঁত ও কারুশিল্পের উন্নয়নে রোডম্যাপ গড়া হবে - চতুর্থ হস্ততাঁত দিবসে বলেছেন উপমুখ্যমন্ত্রী - আরশি কথা

আরশিকথা ঝলক

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

মঙ্গলবার, ৭ আগস্ট, ২০১৮

হস্ততাঁত ও কারুশিল্পের উন্নয়নে রোডম্যাপ গড়া হবে - চতুর্থ হস্ততাঁত দিবসে বলেছেন উপমুখ্যমন্ত্রী


তন্ময় বনিক,আগরতলাঃ
 রাজ্যের সবচাইতে পুরনো শিল্প হস্ততাঁত ও কারু শিল্প। রাজ্যে এই শিল্পের যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে। পরিকল্পনার অভাবে এই শিল্পকে দাঁড় করানো যায়নি। কথাগুলি বলেছেন উপমুখ্যমন্ত্রী যীষ্ণু দেববর্মা। 
 তবে হস্ততাঁত ও কারু শিল্পের কাঁচামালের উৎপাদন ভালো হলেও বাজার ব্যবস্থায় যে অপ্রতুলতা রয়েছে তা স্বীকার করেন উপমুখ্যমন্ত্রী।সেইসঙ্গে এই শিল্পের প্রসারে বর্তমান রাজ্য সরকারের পরিকল্পনার কথাও তুলে ধরেন। সারা দেশের সঙ্গে চতুর্থ জাতীয় হস্ততাঁত দিবস উদযাপন করা হয়েছে। আগরতলায় মূল অনুষ্ঠান হয় প্রজ্ঞাভবনে। 
সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে উপমুখ্যমন্ত্রী বলেন, রাজ্য সরকার হস্ততাঁত শিল্পের উন্নয়নে একটি রোডম্যাপ তৈরি করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। পূর্বাশাকে কিভাবে লাভজনক সংস্থায় পরিণত করা যায় সেই পরিকল্পনাও রয়েছে। বর্তমানে এটি অলাভজনক অবস্থায় পড়ে রয়েছে। রাজ্যে হস্ততাঁত ও কারু শিল্পের উন্নয়নের ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করেন উপমুখ্যমন্ত্রী।  
 শুধু প্রয়োজন এর সঠিকভাবে অর্গানাইজ করা। প্রসঙ্গত, এবছর চতুর্থ জাতীয় হস্ততাঁত দিবস উদযাপন করা হয়। কেন্দ্রে নরেন্দ্র মোদি সরকার আসার পর ৭আগস্ট দিনটিকে জাতীয় হস্ততাঁত দিবস হিসেবে উদযাপনের সিদ্ধান্ত হয়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি চাইছেন স্বদেশী এই শিল্পের উন্নয়ন। আর সেই লক্ষ্যেই এই বিশেষ দিনটি উদযাপনের সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় সরকার। ভারত সরকারের বস্ত্রমন্ত্রকের অধীন উইভার্স সার্ভিসেস সেন্টার এবং রাজ্য সরকারের হস্ততাঁত ও কারুশিল্প দপ্তর যৌথভাবে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। তাতে উপস্থিত ছিলেন উপমুখ্যমন্ত্রী ছাড়াও বিধায়ক ডাঃ দিলীপ দাস, আগরতলা পুরনিগমের মেয়র ডঃ প্রফুল্লজিৎ সিনহা সহ হস্ততাঁত ও কারু শিল্প দপ্তরের আধিকারিকরা।

৭ই আগস্ট ২০১৮ইং                 

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here